চার্লি চ্যাপলিন

ব্রিটিশ চলচ্চিত্র অভিনেতা, পরিচালক ও সুরকার

চার্লি চ্যাপলিন (১৬ এপ্রিল ১৮৮৯ – ২৫ ডিসেম্বর ১৯৭৭) ছিলেন একজন ব্রিটিশ চলচ্চিত্র অভিনেতা, পরিচালক ও সুরকার। তার পুরো নাম ছিল স্যার চার্লস স্পেনসার চ্যাপলিন জুনিয়র। তবে তিনি চার্লি চ্যাপলিন নামেই বেশি পরিচিত ছিলেন। চ্যাপলিনকে বড় পর্দার শ্রেষ্ঠতম মূকাভিনেতা ও কৌতুকাভিনেতাদের একজন বলেও বিবেচনা করা হয়। নির্বাক চলচ্চিত্র যুগের অন্যতম মৌলিক ও প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব চ্যাপলিন নিজের ছবিতে নিজেই অভিনয় করতেন। চিত্রনাট্য ও সংলাপ রচনা, পরিচালনা, প্রযোজনা এমনকি সঙ্গীত পরিচালনাও করতেন।

চার্লি চ্যাপলিন

উক্তিসম্পাদনা

  • এই বিশ্বে স্থায়ী কিছুই না, এমনকি আমাদের সমস্যাগুলোও না।
  • মন খুলে হাসতে হলে নিজের যন্ত্রনাগুলোর সাথে খেলতে শেখো।
  • একটি সৃষ্টিশীল কাজের ভেতরে সত্যটা যত বেশী গভীর হবে, সেটা তত বেশী সময় টিকে থাকবে।
  • আমার সব থেকে ভালো বন্ধু হল আয়না, কারণ আমি আমি যখন কাঁদি তখন সে হাসে না।
  • আমার দুঃখ কষ্টগুলো কারো কারো হাসির কারণ হয়ে থাকতে পারে কিন্তু আমার হাসিগুলি যেন কখনই কারো দুঃখের কারণ হয়ে না দাঁড়ায়।
  • আমি বৃষ্টিতে হাঁটি যাতে কেউ আমার অশ্রু দেখতে না পারে।
  • হাসি হল ঔষধ, যেটা দুঃখ থেকে মুক্তি দেয়।
  • ক্লোজ – আপে জীবন হচ্ছে ট্রাজেডি , কিন্তু লং শটে সেটা কমেডি।
  • আমরা চিন্তা করি বেশি, কাজ করি কম।
  • আমি সবকিছুতেই অসঙ্গতি চেয়েছিলাম: ব্যাগি প্যান্ট, আঁটসাঁট কোট, ছোট মাথার টুপি এবং বড় জুতা... আমি একটি ছোট গোঁফও ব্যবহার করি, যার ফলে আমাকে বয়স্ক দেখাবে কিন্তু আমার অভিব্যক্তিও লুক্কায়িত থাকবে না। আমার এই চরিত্র সম্পর্কে কোন ধারণা ছিল না। কিন্তু যখন আমি পোশাক পরিধান করি, সেই পোশাক ও মেকআপ আমাকে সেই ব্যক্তিত্বকে অনুভব করতে সাহায্য করে। আমি তাকে চিনতে শুরু করি এবং যে সময়ে আমি ক্যামেরার সামনে দাড়াই, ততক্ষণে সেই চরিত্রের জন্ম হয়।
    • চ্যাপলিন, চার্লি (২০০৩) [১৯৬৪]। মাই অটোবায়োগ্রাফি (ইংরেজি ভাষায়)। লন্ডন: পেঙ্গুইন ক্লাসিকস। আইএসবিএন 0-14-101147-5।

বহিঃসংযোগসম্পাদনা