ইবনে সিনা

মধ্যপ্রাচ্যের চিকিৎসক, গণিতজ্ঞ, জ্যোতির্বিজ্ঞানী এবং দার্শনিক

আবু আলি হুসাইন বিন আব্দুল্লাহ ইবনুল হাসান বিন আলী ইবনে সিনা (৯৮০ – জুন ১০৩৭), যিনি ইবনে সিনা, আবু আলি সিনা, পুর সিনা বা পাশ্চাত্যে আভিসেনা নামেও পরিচিত, ছিলেন একজন পারসিক মুসলিম বহুবিদ্যাবিশারদ যাঁকে ইসলামি স্বর্ণযুগের অন্যতম শ্রেষ্ঠ চিকিৎসক, জ্যোতির্বিজ্ঞানী, চিন্তক, লেখক এবং তাঁকে আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞানের জনক গণ্য করা হয়। তর্কসাপেক্ষে প্রাক-আধুনিক যুগের সবচেয়ে প্রভাবশালী দার্শনিক। ইবনে সিনা ছিলেন গ্রিক অ্যারিস্টটলীয় দর্শন দ্বারা প্রভাবিত একজন পেরিপেটিক দার্শনিক। ধারণা করা হয় যে তিনি ৪৫০টি গ্রন্থ রচনা করেছিলেন যার মধ্যে ১৫০টি দর্শনশাস্ত্র বিষয়ক এবং ৪০টি চিকিৎসা বিজ্ঞান বিষয়ক রচনাসহ মোট ২৪০টি গ্রন্থ বর্তমানে টিকে রয়েছে।

ইবনে সিনার চিত্র।

উক্তিসম্পাদনা

  • একজন বেখেয়ালী ডাক্তার মূলত মৃত্যুকে সাহায্যকারী।
    • মরিস বি. স্ট্রস দ্বারা ফ্যামিলিয়ার মেডিকেল কোটেশন (১৯৬৮) এ উদ্ধৃত।
  • আল্লাহ, পরম সত্তা, স্থান দ্বারা পরিবেষ্টিত নন, সময় দ্বারা স্পর্শ করা হন না; তাকে একটি নির্দিষ্ট দিকে পাওয়া যায় না, এবং তার সারমর্ম পরিবর্তন করা যায় না। এসব গোপন কথোপকথন সম্পূর্ণরূপে আধ্যাত্মিক; এটি ঈশ্বর এবং আত্মার মধ্যে একটি সরাসরি আলাপ, যা সমস্ত বস্তুগত সীমাবদ্ধতা থেকে বিমূর্ত।
    • বার্ট ভ্যান ডার ওয়েয়ার দ্বারা সম্পাদিত ৩৬৬ রিডিং ফ্রম ইসলাম (২০০০) এ উদ্ধৃত।
  • আল্লাহর ভয় মানুষকে সকল ভয় হতে মুক্তি দেয়।
  • মহান ব্যক্তি দুটি কার্য সর্বদাই করে। প্রথম - ভুল কে ক্ষমা করা, দ্বিতীয় - ঐ ভুল কে ভুলে যাওয়া।
  • বেশি কথা বলা থেকে বাঁচুন, কেন না বেশি কথা বললে ভুল হয়। একঘেয়েমি ও অনুভব হয়।
  • শরীরের শোষণের জন্য খাওয়া জরুরী, তেমনি আত্মার পোষণের জন্য অপরের সাহায্য করা লাভদায়ী হবে।
  • যেমন সোনা বা রূপার ধ্যান রাখেন, ঠিক তেমনি নিজের জিভের ও খেয়াল রাখুন।

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা